এমন বিদায় কে চায়? চেয়েছিলেন বোধহয় সুশান্ত সিং রাজপুত। সাফল্যের শিখরে থেকেও আত্মহত্যা! ডিপ্রেশনের সঙ্গে হয়তো আর পেরে উঠলেন না ভারতের নতুন প্রজন্মের অন্যতম জনপ্রিয় চলচ্চিত্র অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত। অথচ তাঁর জীবনের লড়াই নিয়েই তৈরি হতে পারত একটা সিনেমা।

বলিউডকে করোনা যতটা আতঙ্কিত করেছে, তার চেয়ে অনেক বেশি বোধহয় ছাপ ফেলছে একের পর এক মৃত্যু। কালজয়ী ইরফান খান, ক্ল্যাসিক ঋষি কাপুরের মৃত্যুর রেশ এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি রোল-ক্যামেরা-অ্যাকশনের জগত, তারই মধ্যে এবার সুশান্তের বড় অসময়ে বিদায় পাথর হয়ে যাচ্ছেন বলিউডের হুজ হু’রা। শুধু কি বলিউড, গোটা ভারতই যেন বলতে চাইছে, ‘প্রিয় সুশান্ত, এমনটা তো কথা ছিল নাহ।

তাঁর কাছের মানুষজনের মুখে বারবার উঠে এসেছে তাঁর হার না মানা এক ইস্পাত কঠিন মনের কথা। নাহলে যে ছেলেটা ফিল্ম ফেয়ার অ্যাওয়ার্ডে ব্যাকগ্রাউন্ড ডান্সার হয়েছিলেন এক সময়, সেই তাঁকে নিয়েই আকাশছোঁয়া লগ্নি করতে পারে বলিউড? স্বয়ং মহেন্দ্র সিং ধোনির মতো আবেগ চাপা লোকও প্রাণখোলা হাসি মুখে জড়িয়ে ধরতে পারেন কাউকে? পারে বা পারেন, কারণ মানুষটার নাম ছিল সুশান্ত সিং রাজপুত।

তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।

রোববার মুম্বাইয়ে বান্দ্রার নিজ বাড়ি থেকে তার গলায় ফাঁস দেয়া ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

বিবিসি হিন্দি প্রতিবেদককে এই খবর নিশ্চিত করেছেন মুম্বাইয়ের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মনোজ কুমার শর্মা।

জানা গেছে, বাড়ির গৃহপরিচারিকা তার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়।

মি. সিং বেশ কিছুদিন ধরে মানসিক বিষণ্নতায় ভুগছিলেন বলে জানা গেছে। তার বয়স হয়েছিল ৩৪ বছর।

তার মৃত্যুতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শোক জানিয়ে টুইট করেছেন। শোক প্রকাশ করেছেন বলিউড তারকা অক্ষয় কুমার, কারান জোহর, ঋত্বিক রোশান, অনুরাগ কাশ্যপসহ অনেকে।

১৯৮৬ সালের ২১শে জানুয়ারী ভারতের বিহার রাজ্যের পাটনায় এক মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন সুশান্ত সিং রাজপুত। ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশোনা করলেও অভিনয় ও নাচের প্রতি ঝোঁক থাকায় মাঝ পথেই বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়াশোনায় ইতি টানেন। একাধিক বলিউডের ছবিতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি।

অভিনেতা হিসেবে তিনি খুবই সফল ছিলেন। তাঁর সবচেয়ে উল্লেখ্য ছবিগুলি হলো এম এস ধোনি, ডিটেকটিভ ব্যোমকেশ বক্সী, কেদারনাথ। শেষ তাঁকে দেখা গিয়েছিল ছিছোরে ছবিতে। কিন্তু তাও কেন অবসাদে ভুগছিলেন তিনি তা রহস্যের। সম্প্রতি অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন তিনি। এক সময়ে অভিনেত্রী কৃতী স্যানন ও অঙ্কিতা লোখান্ডের সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন তিনি। টেলিভিশন শো দিয়ে অভিনয় শুরু সুশান্তের। তাঁর জনপ্রিয় সিরিয়াল ছিল ‘পবিত্র রিস্তা।’ অঙ্কিতা লোখান্ডের সঙ্গে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। রীতিমত ঘরে ঘরে চলত সেই ধারাবাহিক। তখন থেকেই অভিনেত্রীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন তিনি।

তবে অধিকাংশ ছবিই বক্স অফিসে তেমন কামাল দেখাতে পারে নি। সেই কারণেই কি মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন অভিনেতা। নাকি তাঁর ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে টানাপোড়েনেই তাঁকে ঠেলে দিল মৃত্যুর দিকে। স্যুইসাইড নোট ছিল না ঘরে। তাই কারণটা বোধহয় রহস্যেই মাঝেই চাপা পড়ে গেল।

Leave a Reply