একজন সাহাবী বলেছেন :
রাসুল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) আমাদের খালি পায়ে হাঁটাতে নির্দেশ দিতেন। (আবু দাউদ, ৪১৬০)
খালি পায়ে হাঁটলে নিজের ক্ষুদ্রতা উপলব্ধি হয়! নিজের অসহায়ত্ব বোঝা যায়! এ দুনিয়ার নগন্যতা অনুভব করা যায়! এ কারনেই ইমাম আল মানাওই বলেছেন :
“যদি কেউ নিশ্চিত থাকে যে তার পায়ে কোনো ময়লা লাগবে না কিংবা কোনো ক্ষতি হবে না, তাহলে নিজের মনটাকে নরম করার জন্য মাঝে মাঝে খালি পায়ে হাটা উচিত! এ জন্যে বর্নিত আছে রাসুল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) কখন জুতাসহ, আবার কখন জুতা ছাড়া হাঁটতেন! সাহাবীরাও একই কাজ করতেন! “(ফয়দুল ক্বদীর, ১/৩১৭)
আমরা টিভিতে অনেককেই খালি পায়ে হাটতে দেখি! উপন্যাসের বই পড়ে সারা রাত খালি পায়ে হাঁটার পাগলামীও অনেকে করে! অথচ আমরা যদি রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে ভালোবেসে খালি পায়ে হাটতাম তবে কিছু সওয়াব আমাদের আমলনামায় যোগ হতো! অন্তরে তাকওয়া বেড়ে যেত! হারিয়ে যাওয়া এই সুন্নাহটি আমাদের চোখে আঙ্গুল দিয়ে নিজের অসহায়ত্ব বুঝিয়ে দেয়। এই বোধ আমাদের মাঝে এনে দেয় – আমরা হচ্ছি মিসকিন! আমাদের জীবনে যা কিছু আছে সবই তাঁর দেয়া! মহাবিশ্বের স্রষ্টার সামনে এই দুনিয়া কিছুই না!
আমরা কিসের পেছনে ছুটছি?
বই :হারিয়ে যাওয়া মুক্ত
লেখক :শিহাব আহমেদ তুহিন

Leave a Reply